Breaking News

এই এই সমস্যাগুলি চিরতরে দূর হবে গরম দুধের সঙ্গে খেঁজুর খেলে! জানুন বিস্তারিত।

নিজস্ব প্রতিবেদন:-আমাদের শরীরে বিভিন্ন সময় বিভিন্ন রোগের প্রভাব দেখা যায় । কখনো কখনো দেহের রোগ প্রতিরোধ ক্ষ-ম-তা এতটাই কম হয়ে যায় সাধারণ জ্বর সর্দি-কাশি ও সহজে আমাদের আ-ক্রা-ন্ত করতে পারে । কিন্তু অনেকেই আছেন যারা নিয়মিত শরীর চর্চা করেন । বাইরে খাবার থেকে শুরু করে সারাদিন চলে তাদের নিয়মমাফিক ।

তাদের ক্ষেত্রে শারীরিক সমস্যা কোথায় একটু কম হয় । কিন্তু আপনি জানলে অবাক হবেন তারা রোজগার রুটিনে এমন একটি ফল রাখেন যেটি আপনি খেলেও আপনার শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ে দ্বিগুণ । তার পাশাপাশি মুক্তি পাবেন বেশ কয়েকটি রোগ থেকে । আপনি নিশ্চয়ই জানতে উদগ্রীব হয়েছেন যে কি সেই ফল? জানাবো আপনাদের বিস্তারিত ।

এটি এমন এক ধরনের ফল যেটি বিভিন্ন খাবারের সাথে ব্যবহার করা হয় এবং এর একটি প্রাকৃতিক মিষ্টতার হয়েছে । যার ফলে শরীরে কোনো ক্ষতি হয় না । আমি এই মুহূর্তে খেজুরে কথা বলতে চলেছি । বছরের সব সময় খেজুর পাওয়া যায় বাজারে । এবং সে যদি আপনি প্রতিদিন নিয়মিত খান তাহলে শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ার সাথে সাথে অনেক রোগের থেকে মুক্তি পাবেন । তবে শুধুমাত্র খেজুর খেলে চলবে না । তার সাথে খেতে হবে গরম দুধ আসুন দেখে নিই গরম দুধের সাথে খেজুর খেলে কি কি রোগ থেকে মুক্তি মেলে ।

দুধের সাথে খেজুর যদি আপনি মিশিয়ে খান তাহলে আপনার দৈহিক শক্তি অধিক হারে বাড়বে । এর পাশাপাশি যারা ডায়াবেটিস রোগে আক্রা-ন্ত তারা অতি অবশ্যই এটি সেবন করতে পারেন । এবং এর মধ্যে যেহেতু একটা প্রাকৃতিক মিষ্টি রয়েছে তাই এটি কোনো ক্ষতি করে না ।

দুটি থেকে চারটি খেজুরের আগাছা খেজুরের কার্নেলগুলি বের করে দুধে সিদ্ধ করুন। এর পরে খেজুর খাবেন এবং দুধ পান করুন। এটি ধীরে ধীরে শ্লেষ্মা সরিয়ে দেয়, যা হাঁপানিতে স্বস্তি দেয়। আসলে, খেজুরের তারিখটি উষ্ণ, যাতে ফুসফুস এবং হার্টের উপকার হয়।

মহিলাদের প্রতি মাসে মা-সি-ক ব্যথা ভোগ করতে হয়। মহিলাদের পেটে ব্যথা, পিঠে ব্যথা পাশাপাশি পায়ের আঁচিল হয়। এমন পরিস্থিতিতে নিয়মিত গরম দুধের সাথে খেজুর খেলে উপশম হয়।

নিয়মিত বাইরের খাবার খাওয়ার ফলে বা অনিয়মিত খাবার খাওয়ার ফলে আমরা অনেকেই কোষ্ঠকাঠিন্য রোগে আ-ক্রা-ন্ত হয় । এই কো-ষ্ঠ-ঠিন্য রোগ থেকে মুক্তির জন্য এক গ্লাস গরম দুধে তিন থেকে চারটি খেজুর ভালো মতন সিদ্ধ করে নিন । এবং দুধ টি পান করুন । এক থেকে দু মাস প্রতিনিয়ত সেবন করলে মাড়ি থেকে রক্ত পড়ার সাথে সাথে কোষ্ঠকাঠিন্য মতন জটিল সমস্যা থেকে মুক্তি পেতে পারেন আপনি ।

About kolkata buzz24x7

Check Also

‘আরআরআর’, ‘কেজিএফ’-এর মতো ‘অর্থহীন’ ছবি দেখবেন না, শ্রোতাদের অনুরোধ করলেন জুবিন

নিজস্ব প্রতিবেদন:বর্তমানে বলিউড ইন্ডাস্ট্রি বিভিন্ন চলচ্চিত্রে থেকেও বেশি পরিমাণে মানুষের মনে জায়গা করে নিয়েছে দক্ষিণের …

Leave a Reply

Your email address will not be published.