Breaking News

লোডশেডিংয়ের হাত থেকে চিরতরে মুক্তি! গোটা দেশজুড়ে সবার বাড়িতে বসতে চলেছে প্রিপেইড ডিজিটাল মিটার! রইল বিস্তারিত।

নিজস্ব প্রতিবেদন :-সরকার প্রতিনিয়ত সমস্যা সমাধান করে চলেছে । দেশের সাধারণ মানুষ যাতে কোনো রকম কোনো সমস্যার সম্মুখীন না হয় তার জন্য চিন্তা ভাবনা করছে কেন্দ্র এবং রাজ্য সরকার । কিন্তু তারপরও ফাঁক থেকে যাচ্ছে বহু জায়গায় । এবং সে জায়গা থেকেই তারা প্রতিনিয়ত নানান ধরনের বেআইনি কাজ কর্মের সাথে যুক্ত হয়ে পড়ছে । যেমন বিদ্যুৎ চুরি । আমরা এর আগে বিদ্যুৎ চুরি নানান ধরনের ঘটনার সাক্ষী থেকেছে ।অভিযোগ উঠেছে সামনের সারিতে । কিন্তু এবার সেই সমস্যার সমাধান করতে মরিয়া কেন্দ্রীয় সরকার জারি করল নতুন প্রিপেইড মিটারের আসুন দেখে নেওয়া যাক এ সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য ।।

আমাদের দেশে এমন অনেক জায়গা রয়েছে যেখানে লোডশেডিং এর সমস্যা প্রবল পরিমাণে । সে সমস্ত জায়গাতে বিশেষ করে একটি পেইড মিটার বসানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে কেন্দ্রীয় সরকার । আগামী ২০২৩ সালের মধ্যে যে সমস্ত অঞ্চলে ১৫% সমস্যা রয়েছে লোডশেডিং এর সমস্ত জায়গায় বসানো হবে প্রিপেইড মিটার । তার পাশাপাশি যে সমস্ত অঞ্চলে ২৫% সমস্যা রয়েছে সেই জায়গাতে বসানো হবে এই প্রিপেইড মিটার .এবং ২০২৫ সালের মধ্যে গোটা দেশজুড়ে বসানো হবে এই মিটার ।

। প্রিপেইড মিটার একদম প্রিপেইড মোবাইলের মত কাজ করবে। যতটা বিদ্যুৎ ব্যবহার সেইমতো টাকা। টাকা না দিলে লাইন থাকবে না। রিচার্জের মাধ্যমে এই পরিষেবা ব্যবহার করা যাবে। কেন্দ্রীয় সরকারি দফতরে, প্রি-পেইড মিটার স্থাপনের পর সারাদেশে বাস্তবায়িত হবে এমনটাই খবর সকল বিদ্যুৎ গ্রাহকদের বাড়িতে প্রিপেইড স্মার্ট মিটার বসানো যাবে। বিদ্যুৎ মন্ত্রকের মতে, আর্থিক স্থিতি আনার জন্যই এই প্রচেষ্টা। রাজ্যগুলির জন্য একটি মডেল হিসেবে কাজ করবে এই সংস্থা।

গ্রাম থেকে শহর বিভিন্ন মুনিসিপালিটি এরিয়াতে এই ধরনের ব্যবস্থা ছড়িয়ে পড়বে আগামী দিনে খুব শীঘ্রই ভাবে ।এই নতুন মিটারের মাধ্যমে নিশ্চিত করা হবে সরকারি বিভাগগুলি যাতে এর জন্য একটি নির্দিষ্ট আর্থিক বাজেট রাখে। এছাড়া অদূর ভবিষ্যতে কোন মিটার নষ্ট,খারাপ হওয়া বা ত্রুটি দেখা দিলে দ্রুত পরিবর্তন বা মেরামত করা যায়, সে চেষ্টা বিদ্যুৎ বিতরণ কোম্পানি গুলির। বিদ্যুৎ পরিষেবাগুলি পাওয়ার জন্য এবং বকেয়া টাকার ঝক্কি মেটাতে এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে বিদ্যুৎ মন্ত্রক।

এখনও অবধি গোটা দেশে প্রায় ২০ লাখ স্মার্ট মিটার বসানো হয়ে গিয়েছে। এনার্জি এফিসিয়েন্সি সার্ভিস লিমিটেড বা EESL এর পক্ষ থেকে সারা দেশ জুড়ে ইতিমধ্যেই ১৫.৭ লাখ স্মার্ট মিটার বিভিন্ন রাজ্যে বসানো হয়েছে। এই সমস্ত রাজ্যগুলির মধ্যে আছে অন্ধ্রপ্রদেশ, হরিয়ানা, দিল্লি, বিহার, রাজস্থান দিল্লির NDMC- প্রভৃতি।প্রিপেইড স্মার্ট মিটার বসানোর কাজ অবশ্য ইতিমধ্যেই শুরু হয়ে গিয়েছে।

কেন্দ্রের তরফ থেকে এই প্রোজেক্টের জন্য ইতিমধ্যেই ১.৫ লাখ কোটি টাকা দেওয়া হয়েছে। এছাড়া জুন মাসে বিদ্যুৎ বন্টনকারী সংস্থাগুলির রিফর্ম স্কিমের উপর ভিত্তি করে কেন্দ্রীয় সরকার ৩.০৩ লাখ কোটি টাকা ডিসকম স্কিমের প্রকল্পের কথা ঘোষণা করেছে। উল্লেখ্য,প্রি পেইড স্মার্ট মিটারের এই যে প্রোজেক্ট, তা এই ডিসকম স্কিমের সঙ্গে অঙ্গাঙ্গীকভাবে জড়িত।

About kolkata buzz24x7

Check Also

‘আরআরআর’, ‘কেজিএফ’-এর মতো ‘অর্থহীন’ ছবি দেখবেন না, শ্রোতাদের অনুরোধ করলেন জুবিন

নিজস্ব প্রতিবেদন:বর্তমানে বলিউড ইন্ডাস্ট্রি বিভিন্ন চলচ্চিত্রে থেকেও বেশি পরিমাণে মানুষের মনে জায়গা করে নিয়েছে দক্ষিণের …

Leave a Reply

Your email address will not be published.