Breaking News

সাবেক ৫ অধিনায়কের সঙ্গে যে কথা হলো পাপনের

সদ্য সমাপ্ত টেস্ট সিরিজে ওয়েস্ট ইন্ডিজের কাছে ২-০ তে হোয়াইটওয়াশের পর দল নিয়ে পর্যালোচনা করছেন বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের উচ্চপর্যায়ের কর্মকর্তারা।বিশেষ করে জাতীয় দলের খেলোয়াড়দের এমন পারফরম্যান্সে রীতিমতো হতাশ ও চিন্তিত বিসিবি সভাপতি নাজমুল হোসেন পাপন।ঢাকা টেস্টে হারের পর প্রচণ্ড ক্ষোভ হয়ে অধিনায়ক, কোচ ও জাতীয় দলের খেলোয়াড়দের থেকে শুরু করে নির্বাচকদেরও ধুয়ে দেন পাপন। এভাবে আর চলতে দেওয়া যায় না বলে কোচ ও অধিনায়কের জবাবদিহি চান তিনি।পরে অবশ্য রাগ প্রশমন করে কীভাবে টেস্ট ফরম্যাটে উত্তরণ ঘটানো যায় তার পরিকল্পনা শুরু করেন।এ বিষয়ে ইতোমধ্যে জাতীয় দলের সাবেক পাঁচ অধিনায়কের সঙ্গে বৈঠক সেরেছেন বিসিবি বস।সাবেক অধিনায়করা হলেন– আকরাম খান, নাইমুর রহমান দুর্জয়, খালেদ মাহমুদ সুজন, মিনহাজুল আবেদিন নান্নু আর হাবিবুল বাশার সুমন। তাদের প্রথম তিনজন বোর্ড পরিচালক। শেষের দুজন জাতীয় দলের নির্বাচক।বুধবার বিকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত বোর্ডের এ পাঁচ নীতিনির্ধারকের সঙ্গে বনানীর নিজ বাসায় দীর্ঘক্ষণ একান্তে আলাপ করেন বিসিবি সভাপতি।সেই বৈঠকে বাংলাদেশ ক্রিকেটের উন্নয়নে আর টেস্ট ফরম্যাটে ভরাডুবি থেকে রেহাই পেতে কী কী বিষয় নিয়ে আলোচনা হয়েছে তা জানতে আগ্রহী দেশের ক্রিকেটপ্রেমীরা।

বৈঠকশেষে নাইমুর রহমান দুর্জয় জানালেন, তাদের পাঁচজনের কথা মন দিয়ে শুনেছেন বিসিবি সভাপতি। তিনি নিজে কোনো বার্তা দেননি। বললেন, ‘সামনের সিরিজগুলো নিয়ে বোর্ডের পলিসি কী হবে, তা নিয়ে আলোচনা হয়েছে। যদিও চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়নি কোনোটির।  এ ছাড়া ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে সিরিজে জাতীয় দলের পারফরম্যান্স নিয়ে খোলামেলা আলোচনা হয়েছে। সেখানে আমরা সবাই ক্রিকেটারদের ব্যর্থতার বিষয়ে মত দিয়েছি। কার চোখে কী ধরা পড়েছে, কার মাথায় কী এসেছে, কী করলে ভালো হতো, আরও ভালো উন্নতি করতে পারতাম– এ ধরনের আলোচনা হয়েছে।’দলে পরিবর্তন আনা নিয়ে বড় কোনো সিদ্ধান্ত হয়নি বলে জানিয়ে দুর্জয় বলেন, ‘এটি তো নির্বাচক প্যানেলের ব্যাপার। নিউজিল্যান্ড সফর সন্নিকটে। তাই পরিবর্তন না করে কীভাবে এখান থেকে উত্তরণ করতে পারি, সেটি নিয়ে কথা বলেছেন বোর্ডপ্রধান।  আমরা সবার মাথা থেকে আইডিয়া শেয়ার করেছি তার কাছে।’

তথ্যসূত্র : যুগান্তর

About kolkata buzz24x7

Leave a Reply

Your email address will not be published.